Join Our Telegram Group to connect with bigger community. Join Now!

Table of Content

সিলেট শব্দের উৎপত্তি হয় কিভাবে? - Peak Fiction

সিলেট নামটি কীভাবে এসেছে? এ নিয়ে প্রচলিত আছে নানান জনশ্রুতি ও কিংবদন্তী। প্রাচীন গ্রন্থসমূহে সিলেট অঞ্চলের ভিন্ন ভিন্ন নামের উল্লেখ্য পাওয়া যায়। ধারণা করা হয় সেই নামগুলো থেকেই কালের পরিক্রমায় আজকের ‘সিলেট’ নামের উদ্ভব।
সিলেট শব্দের উৎপত্তি হয় কিভাবে? - Peak Fiction
সিলোটি ভাষায় প্রাচীনকাল থেকেই সিলেটকে শ্রীহট্ট নামে ডেকে আসা হয়েছে। কিন্তু শ্রীহট্ট নামের উৎস নিয়েও রয়েছে ব্যাপক অস্পষ্টতা। এর সাথে হিন্দু পৌরাণিক আখ্যানের প্রভাব জড়িত থাকতে পারে বলে অনেকে বিশ্বাস করেন। পুরাণ অনুযায়ী শ্রী শ্রী হাটকেশ্বর হচ্ছে মহাদেব শিবের বহু নামের অন্যতম। তৎকালীন গৌড় (শ্রীহট্ট) রাজাদের কর্তৃক পুজিত শ্রী হাটকেশ্বরই শ্রীহট্ট নামের উৎস বলে অনেকে মনে করেন।আবার কথিত আছে, এ অঞ্চলেই সতীর কাটা হস্ত পড়েছিলো। এ কারণে এ অঞ্চলের নামকরণ হয়েছিলো, “শ্রী হস্ত”; সেখান থেকেই শ্রীহট্ট নামের উৎপত্তি।

পরবর্তীতে তুর্কি সেনাপতি ইখতিয়ার উদ্দীন মুহম্মদ বিন বখতিয়ার খলজী বঙ্গ বিজয় করলে এদেশে মুসলিম সমাজব্যবস্থার সূত্রপাত ঘটে। তখন মুসলিম শাসকগণ তাদের দলিলপত্রে শ্রীহট্ট নামের পরিবর্তে ‘সিলাহেট’,’সিলহেট’ নামগুলো ব্যবহার করা শুরু করেন। আর এভাবেই শ্রীহট্ট থেকে রুপান্তরিত হতে হতে একসময় সিলেট নামটি প্রসিদ্ধ হয়ে উঠেছে বলে ধারণা করা হয়।
সিলেট শব্দের উৎপত্তি হয় কিভাবে? - Peak Fiction
সিলেট নামটি নিয়ে প্রচলিত রয়েছে আরো একটি জনশ্রুতি। বলা হয়, এখানে এক ধনী ব্যক্তির এক কন্যা ছিলো, তার নাম ছিলো শিলা। কিন্তু অকালে প্রাণ হারাতে হয় শিলাকে। তাই তার পিতা কন্যার স্মৃতি রক্ষার্থে একটি হাট নির্মাণ করেন আর সেটির নামকরণ করেন ‘শিলার হাট’। এই শিলার হাট নামটিই পরবর্তীতে বিকৃত হয়ে সিলেট নামের উৎপত্তি ঘটে।

সিলেটের নামকরণের বিষয়ে আরেকটি প্রচলিত গল্প আবর্তিত হয়েছে বিখ্যাত সুফী দরবেশ হযরত শাহজালাল (রঃ) কে ঘিরে। কথিত আছে, তিনি যখন শ্রীহট্টের দিকে আগমন করেন তখন তৎকালীন হিন্দু রাজা গৌড়গোবিন্দ তাঁর আগমন থামাতে শ্রীহট্ট সীমান্তে পাথরের দেয়াল তৈরি করেন। কিন্তু হযরত শাহজালাল তার অলৌকিক ক্ষমতা দিয়ে ‘শিল হট্’ বলতেই সেই শিল বা পাথর সড়ে যায়। এ থেকেই এই ভূমির নাম হয়েছে শিল-হট, এবং পরবর্তীতে সে নাম রূপান্তরিত হয়ে সিলেট নামের উৎপত্তি ঘটে।

তথ্যসূত্রঃ
১। আসাদুজ্জামান জুয়েল, “বাংলা কিংবদন্তি”, ভূমিপ্রকাশ (২০১৯)
২। সিলেট - উইকিপিডিয়া

Post a Comment