Join Our Telegram Group to connect with bigger community. Join Now!

Table of Content

Slam Dunk anime review in Bangla | Peak Fiction

The Slam Dunk

হতাশ! আমি পুরোই হতাশ! এতটা হতাশ আমি কোনো এনিমে দেখে কখনোই হইনি মনে হয়। Slam Dunk দেখার পর এখন আমি হতাশার সাগরে হাবুডুবু খাচ্ছি। যেকোন সময় টুপ করে পুরোপুরি হতাশায় ডুবে যেতে পারি।
Slam Dunk anime review in Bangla | Peak Fiction
📌 Anime Name : Slam Dunk 
📌 Genre : Sports
📌 IMDB : 8.7/10
📌 MyAnimeList : 8.54/10
📌 Total Season : 1
📌 Total Episode : 101
📌 Rated : PG 13
ওয়েট! আপনারা আবার ভেবে বসবেন না যেন আমার Slam Dunk ভালো লাগেনি। I Loved It. আমার খুবই ভালো লেগেছে এই ১০১ এপিসোডের এনিমে সিরিজটি। তবে আমার হতাশা অন্য জায়গায়। 

Slam Dunk Anime Synopsis:

টকটকে লাল চুল, অস্বাভাবিক উচ্চতা আর খিটখিটে মেজাজের কারণে সাকুরাগি হানামিচি স্কুলের সবার কাছে পরিচিত। হানামিচি বাস্কেটবল অপছন্দ করে। কারণ মিডল স্কুলে থাকা অবস্থায় সে অনেক মেয়েকে প্রপোজ করে রিজেক্ট হয়েছে কারণ সেসব মেয়েরা বাস্কেটবল খেলে এমন ছেলেদের পছন্দ করে। তাই সাকুরাগি মনে প্রাণে বাস্কেটবল ঘৃণা করে। 
তবে ভাগ্যের কি নির্মম পরিহাস! হারুকো নামের এক মেয়ে তাকে এসে জিজ্ঞেস করে সে বাস্কেটবল খেলে কিনা। হারুকোকে প্রথম দেখাতেই হানামিচি পছন্দ করে ফেলে। এরপর বিভিন্ন ঘটনাচক্রে সে স্কুলের বাস্কেটবল টিমের সাথে জড়িয়ে পড়ে। একসময় যে খেলাকে সে ঘৃণা করতো সেই খেলাতেই সে নিজেকে জড়িয়ে ফেলে আষ্টেপৃষ্টে। 
স্ল্যাম ডাঙ্ক, Slam Dunk anime review in Bangla | Peak Fiction

Slam Dunk Anime Review:

আমার অন্যতম প্রিয় একটা জনরা হচ্ছে স্পোর্টস। এই জনরা আমাকে খুব করে টানে। এর আগে Haikyuu, One Outs দেখে স্পোর্টস জনরার প্রেমে পড়েছিলাম প্রবলভাবে। তারপর গুগলে বেস্ট স্পোর্টস এনিমে সার্চ করতে গিয়ে বারবার Slam Dunk এর নাম চলে আসছিল। তাই সময় করে বসে পড়েছিলাম দেখার জন্য। তবে সত্যি বলতে প্রথম ৪০ এপিসোড পর্যন্ত হানামিচিকে আমার খুবই বিরক্ত লাগছিলো। ম্যাচের মাঝখানে ওর উল্টাপাল্টা কাজকারবারের জন্য তার টিমের পয়েন্ট হারানোটা আমার কাছে কেমন যেন লাগছিলো। তবে ৪০ এপিসোডের পর থেকে হানামিচির ক্যারেক্টার ডেভেলপমেন্টটা খুব সুন্দরভাবেই গুছিয়ে আনা হয়েছে। টিমের বাকি সবার বাস্কেটবল খেলার পূর্ব অভিজ্ঞতা থাকলেও সাকুরাগি এই খেলায় ছিলো একদম নতুন। তাই তার ক্যারেক্টার ডেভেলপমেন্টকে কিভাবে দেখানো হবে সেটা ছিল আমার বড় একটা চিন্তা। তবে এখানেই দেখানো হয়েছে মুন্সিয়ানার পরিচয়। একদম ওভার দ্য টপ কোনো ডেভেলপমেন্ট দেখানো হয়নি এই সিরিজে। একদম রিয়েলিস্টিক ডেভেলপমেন্ট আমি দেখেছি। প্রধান চরিত্র হওয়ায় একদম গাছের গোড়া ধরার সাথে সাথে মগডালে তাকে উঠিয়ে দেয়া হয়নি। প্রতি ধাপে ধাপে ধীরে ধীরে তাকে বাস্কেটবলের বেসিক শেখানো হয়েছে। যেটা আমার খুবই ভালো লেগেছে। তাই প্রথম প্রথম বিরক্ত লাগার পরেও শেষমেশ আমার মতে হানামিচিই সিরিজের বেস্ট ক্যারেক্টার। 
শুধু হানামিচিই নয়, এই সিরিজের প্রায় সব চরিত্রই ছিলো পছন্দের। ক্যাপ্টেন তাকেনোরি, রুকাওয়া, রিওতা, কোচ আনযাই সেনসে, হারুকো, কোগুরো এক কথায় সবাই তাদের জায়গা থেকে ছিল বেস্ট৷ 
Slam Dunk anime review in Bangla | Peak Fiction
সিরিজটা এমন একটা জায়গায় গিয়ে শেষ করে দেয়া হয়েছে যেটা পুরোপুরো আনএক্সপেকটেড। বলতে গেলে সিরিজের আসল মজাটাই পাওয়া শুরু হয়েছিল শেষ পর্যায়ে গিয়ে। তাই ন্যাশনাল চ্যাম্পিয়নশীপ দেখতে না পারাটাই আমার কাছে সবচেয়ে হতাশাজনক। ইন্টার হাইয়ের প্রিলিমিনারি স্টেজের ম্যাচগুলো খুবই উপভোগ্য ছিল। তবে শেষে যে হিন্টস দেয়া হয়েছে তাতে বোঝাই যাচ্ছিল ন্যাশনালের ম্যাচগুলোয় হতো আরো বেশি হাড্ডাহাড্ডি লড়াই। নতুন নতুন শক্তিশালী খেলোয়াড়ের আবির্ভাব ঘটতো। যা দেখতে মজাই লাগতো বলে আমার মনে হয়। ঠিক এই কারণেই আমি লেখার শুরুতে হতাশার কথা বলেছি আমি। 
তবে ১০১ এপিসোডের এই সিরিজ আমি খুবই এনজয় করেছি। আশা করি ভবিষ্যতে কখনো হয়তো এই সিরিজের সিকুয়েল আসবে। সেই আশায় বুক বেঁধে রইলাম।

সম্পূর্ণ রিভিউটি পড়ার জন্য ধন্যবাদ। রিভিউ লেখায় আমি খুবই কাঁচা। ভুলত্রুটি হলে ধরিয়ে দেয়ার অনুরোধ রইলো, পরবর্তীতে শুধরে নেয়ার চেষ্টা করবো। রিভিউ কেমন লাগলো জানালে ভবিষ্যতে আরো রিভিউ লেখার উৎসাহ পাবো।
- আবির রায়হান অভ্র
- Peak Fiction

Post a Comment